বাজেটের ঘাটতি কমাবে ভ্যাট আইন

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: রবিবার ২রা জুন ২০১৯ ১২:২৬ অপরাহ্ন
বাজেটের ঘাটতি কমাবে ভ্যাট আইন

২০১৯-২০২০ অর্থবছরেবাজেটের সম্ভাব্য আকার ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। মোট রাজস্বের লক্ষ্যমাত্রা হতে পারে ৩লাখ ৭৭ হাজার ৮১০ কোটি টাকা। যেখানে কর রাজস্ব ৩ লাখ ৪০ হাজার ১শ কোটি, করবহির্ভূত রাজস্ব ধরা হয়েছে ৩৭ হাজার ৭শ ১০ কোটি টাকা। এনবিআরকে ৩ লাখ ২৫ হাজার ৬০০ কোটি টাকার রাজস্ব আয়ের লক্ষ্য দেওয়া হচ্ছে। এনবিআরের এ লক্ষ্য চলতি অর্থবছরের সংশোধিত লক্ষ্যের চেয়ে প্রায় ৪৬ হাজার কোটি টাকা বেশি। বিশেষজ্ঞর াবলছেন নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন হলে বাজেট ঘাটতি কমবে।বরাদ্দ বাড়বে গুরুত্বপূর্ণ খাতে। টানা ৩য় মেয়াদে আওয়ামীলীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার ক্ষমতায়। ১১তম জাতীয় সংসদে প্রথম বাজেট উপস্থাপন হবে আগামী ১৩ই জুন। অর্থমন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামালের প্রথম বাজেট এটি।

২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের বাজেট হলেও আগামী ৫ বছরের চিন্তা এবং সরকারের ভিশন ২০৪১ সালের দর্শন গুরুত্ব পাবে বাজেটে। এমনটাই জানিয়ে আসছেন অর্থমন্ত্রী। তাই এবার বাজেটের সম্ভাব্য আকার ধরা হচ্ছে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। স্বাভাবিকভাবেই রাজস্ব আহরনের লক্ষ্যমাত্রাও বেশি ধরা হচ্ছে। সম্ভাব্য মোট রাজস্ব আয়ের লক্ষ্য ধরা হচ্ছে ৩লাখ ৭৭ হাজার ৮১০ কোটি টাকা। কর রাজস্ব হতে পারে ৩লাখ ৪০ হাজার ১শ কোটি টাকা। কর বহির্ভূত রাজস্ব ধরা হয়েছে ৩৭ হাজার ৭শ ১০ কোটি টাকা। এনবিআরকে টার্গেট দেয়া হয়েছে ৩লাখ ২৫ হাজার ৬শ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছর এনবিআরকে ২ লাখ ৯৬ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য দেওয়া হয়েছিল। কাংখিত হারে আদায় না হওয়ায় লক্ষ্য কমিয়ে ২ লাখ ৮০ হাজার ৬৩ কোটি টাকায় নামিয়ে আনা হয়।

এদিকে, আগামী বাজেটে এনবিআরবহির্ভূত কর রাজস্ব প্রস্তাব করা হচ্ছে ১৪ হাজার ৫শ কোটি টাকা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন দিনদিন অর্থনীতির আকার বড় হচ্ছে,বাড়ছে সব খাতের উৎপাদনশীলতা। তাই এনবিআরকে এমন রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা দেয়া প্রয়োজন, যা  দক্ষতার পূরণ করা সম্ভব। ভ্যাট থেকে ১লাখ ১৭ হাজার ৬শ ৭২ কোটি টাকা,আয় কর থেকে ১লাখ ১৫ হাজার ৫শ ৮৮ কোটি টাকা এবং শুল্কখাতের সম্ভাব্য রাজস্ব হতে পারে ৯২ হাজার ৩শ ৪০ কোটি। আসছে বাজেট থেকেই  নতুন ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন হবে, এ কথ্ওা বলছেন অর্থমন্ত্রীসহ এনবিআরের কর্মকর্তারা। এতে বাজেট ঘাটতি হ্রাস প্ওায়ার পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ খাতে বরাদ্দ বাড়বে। এমন আশা পরিকল্পনামন্ত্রীর। অন্যদিকে, রাজস্ব আওতা বৃদ্ধি এবং কর ফাঁকি রোধে অনলাইনে ভ্যাট আদায়ের অবকাঠামো তৈরি করা,ইসিআর মেশিন চালুসহ নানা পরিকল্পনা নিচ্ছে এনবিআর।

ইনিউজ ৭১/এম.আর