সরাইলে বাঁশের খুঁটিতে বিদ্যুৎলাইন!

নিজস্ব প্রতিবেদক
মো: তাসলিম উদ্দিন, সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
প্রকাশিত: সোমবার ২২শে ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৪:৪৯ অপরাহ্ন
সরাইলে বাঁশের খুঁটিতে বিদ্যুৎলাইন!

সরাইল উপজেলা জুড়ে চলছে ইরি -বোরো ধান চাষ।এ মৌসুমে চাষীরা সেচ প্রকল্পের মাধ্যমে ধানের জমিতে পানি দিতে হয়।জমির মধ্যে দিয়েই বাঁশের খুঁটি পুতে ঝোলানো হয়েছে বিদ্যুতের তার। তারের জটলার ভার সইতে না পেরে বাঁশগুলো হেলে আছে।কোথাও বা হেলে থাকা বাঁশ ঠেকনা দেওয়া হয়েছে আরেকটি বাঁশ দিয়ে।


ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরাইল উপজেলার সদর উচালিয়াপাড়া গ্রামের বড়বাড়ি কবরস্থানের উপর দিয়ে জমিতে সেচ প্রকল্পের এমন ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করে সরাইল উপজেলা ক্রয়-বিক্রয়  বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগ ( বিউবো)।দীর্ঘদিন ধরেই বিদ্যুতের খুঁটি বসানোর দাবি জানিয়ে আসছেন তাঁরা। কিন্তু কর্তৃপক্ষ নীরব ভূমিকায় লক্ষ্য করা যাচ্ছে।


সরেজমিনে দেখা গেছে, পুরানো খুঁটি কবরস্থানের উপর দিয়ে জমিতে জায়গা জুড়ে  বসানো বাঁশের ৩ টি-খুঁটি ভরসা করে বিদ্যুতের সংযোগ দেওয়া হয়েছে। মূল লাইনটি যেখানে গিয়ে শেষ, সেখানে ভাঙা খুঁটিতে ঝুলানো হয়েছে বিদ্যুৎ সংযোগ।


নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিদ্যুৎ বিভাগের একটি সূত্র জানিয়েছে, ১০০ গজের বেশি দূরত্বে সার্ভিস লাইন দেওয়ার কোনো নিয়ম নেই। ১০০ গজের অতিরিক্ত দূরত্ব হলে অবশ্যই খুঁটি দিতে হবে, এখানে মাঝের স্থানগুলোতে বসানো হয়েছে বাঁশের খুঁটি।কৃষক দিলু মিয়া বলেন, আমরা অনেক বছর ধরে দেখতেছি খুঁটির এ অবস্থা কটা খুঁটি ভাঙা আবার বাঁশের খুঁটি।


এভাবে বিদ্যুৎ নেওয়াটা খুব ঝুঁকিপূর্ণ, তবু কিছু করার নেই। ঝুঁকি নিয়েই বিদ্যুৎ ব্যবহার করতে করছে।এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সরাইল উপজেলা বিদ্যুৎ বিভাগের  নির্বাহী প্রকৌশলী সামির আসাভ বাঁশের খুঁটি বিদ্যুতের লাইন স্বীকার করে বলেন,বর্তমানে সরাইলে ২ হাজার খুঁটির কাজ চলছে পরবর্তীতে খুঁটি আসলে পরিবর্তন করে দেবো।