দখল দূষণে ভরে গেছে প্রাচ্যের ভেনিস বরিশাল : নৌ প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
জেলা প্রতিনিধি, বরিশাল।
প্রকাশিত: সোমবার ২৩শে মে ২০২২ ০৭:২০ অপরাহ্ন
দখল দূষণে ভরে গেছে প্রাচ্যের ভেনিস বরিশাল : নৌ প্রতিমন্ত্রী

প্রাচ্যের ভেনিস বরিশাল। বরিশালবাসীর-ই কথায় উঠে আসছে-ভেনিস শহর যেভাবে নদী-খাল দিয়ে পরিবেস্টিত ছিলো, সেই খালগুলোতে এখন জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। বন্ধ হয়ে গেছে, দখল হয়ে গেছে এবং দুষনে ভড়ে গেছে। এখন প্রাচ্যের ভেনিস এ কথাটি বলতে লজ্জাই লাগে, তারমানে ৫০ বছরের বাংলাদেশ এই জায়গাতে চলে আসলো। যখন ১৯৭২ সালে আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নদীর নব্যতা ফিরিয়ে আনতে ৫০ বছর আগে যে কথা বলেছিলেন, আজ ৫০ বছর পর সে কথাগুলো নিয়ে আমরা চর্চা করছি। সোমবার বরিশালের কীর্তনখোলা নদীরে তীরে বিআইডব্লিউটিএর ড্রেজার বেইজ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথাগুলো বলেন নৌ পরিবহন মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী-এমপি।


এ সময় প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আজ বিআইডব্লিউটিএ এর যে ড্রেজার বেইজ উদ্বোধন করলাম সেটাই ছিলো বঙ্গবন্ধুর সপ্ন। তিনি যে বলেছিলেন নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে হবে, সেগুলো কিভাবে- এই ড্রেজারের মাধ্যমে ড্রেজিং করে আমাদের নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে হবে। সেজন্য তিনি সাড়ে ৩ বছরে ৭ টি ড্রেজার সংগ্রহ করেছিলেন এবং আমাদের বহরে ওই সাতটি ড্রেজারই ছিলো ২০০৮ সাল পর্যন্ত, এটি ৮ টি ড্রেজারেও উন্নীত হয়নি। আজ বঙ্গবন্ধুর উত্তরাধিকারী প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা গত ১৩ বছরে এই বিআইডব্লিউটিএর ড্রেজার বহরে ৪০ টির অধিক ড্রেজার যুক্ত করেছেন। এখন আরো ৩৫ টি ড্রেজার আমরা সংগ্রহ করছি। মানে ৭৫-৮০ টি ড্রেজার আগামী ২ বছরের মধ্যে আমাদের সংগ্রহে থাকতে যাচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আরো ২ টি উদ্ধারকারী জলজানও তিনি ইতিমধ্যে আমাদের বহরে যুক্ত করেছেন। এসব উদাহরনে কি প্রমান হয়না, ৪০ বছরে যা হয়নি এই ১৩ বছরে তা হয়েছে। ১৯৭৫ সালে যে হত্যাকান্ড তা শুধু ব্যক্তি বা পারিবারিক হত্যাকান্ড। এটি বাংলাদেশকে হত্যাকান্ডের ষড়যন্ত্র ছিলো। ৭৫ পরবর্তী কোন সরকার এই নদী মাতৃক বাংলাদেশকে ধরে রাখার চেষ্টা করেননি। যা করেছেন তা সবই লোক দেখানো।


প্রতিমন্ত্রী বলেন, দক্ষিনাঞ্চলের নদীর প্রবাহ, নদী পথগুলো সঠিক রাখার জন্য বরিশালে ড্রেজার বেইজ উদ্বোধন করা হলো। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সপ্ন তারই কন্যা দেশরতœ শেখহাসিনা বাস্তবায়ন করছে। এই ড্রেজার বেজে ২০-২৫ টি ড্রেজার থাকবে। শুধু এখানে নয় দেশের ১১ টি জায়গায় ড্রেজার বেজ করছি। যেখানে ড্রেজার সংরক্ষনে থাকবে এবং সেখান থেকে ড্রেজিং ব্যবস্থাপনা মনিটরিং করা হবে। এভাবে নদীমাতৃক বাংলাদেশকে ধরে রাখতে চাই। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী ১০ হাজার কিলোমিটার নৌপথ তৈরিতে এই ড্রেজার বেইজগুলো সহায়ক ভূমিকা রাখতে পারবে। ডুবোচরসহ যেকোনভাবে নাব্যতা সংকট নিরসনে আমাদের ড্রেজারগুলো তাৎক্ষনিক কাজ করতে পারবে।


বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক এর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ, বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আমিন উল আহসান, জেলা প্রশাসক মোঃ জসীম উদ্দীন হায়দার, পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন প্রমুখ।