দেশের জন্য পিএসএল ছাড়লেন রশিদ খান

নিজস্ব প্রতিবেদক
খেলাধুলা ডেস্ক, জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: মঙ্গলবার ২৩শে ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন
দেশের জন্য পিএসএল ছাড়লেন রশিদ খান

একে একে তারকা ক্রিকেটার হারাতে শুরু করেছে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। টুর্নামেন্টের চার ম্যাচ যেতেই বিদায় বলে দিলেন বর্তমানে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের অন্যতম সেরা দুই তারকা ক্রিস গেইল ও রশিদ খান।


সোমবার রাতে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরস ও লাহোর কালান্দারসের মধ্যকার ম্যাচ শেষে দেশের হয়ে খেলার জন্য পিএসএল ছাড়ার কথা জানিয়েছিলেন গেইল। আজ (মঙ্গলবার) সকালে একই কারণে টুর্নামেন্ট ছেড়ে যাওয়ার ঘোষণা দিলেন রশিদ খান।


ওয়েস্ট ইন্ডিজের তিন ম্যাচের সিরিজ শেষ করে গেইল আবার পিএসএলের দ্বিতীয় পর্বে তার দল কোয়েটার সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন। কিন্তু আগামী ২ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ শেষ করে রশিদের জন্য আবার ফিরে আসা সম্ভব হবে না।


কেননা জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আফগানদের শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি হবে ২০ মার্চ। অন্যদিকে পিএসএল ফাইনাল মাঠে গড়াবে ২২ মার্চ। ফলে তার দল লাহোর কালান্দারস ফাইনালে উঠলেও, বর্তমান বাস্তবতায় একদিনের মধ্যে আরব আমিরাতে টি-টোয়েন্টি খেলে আবার পিএসএলের মাঠে নামা হবে না রশিদের।


টুর্নামেন্ট ছেড়ে যাওয়ার কথা জানিয়ে টুইটবার্তায় রশিদ লিখেছেন, ‘খুব অল্প সময়েই পিএসএল ছাড়তে হচ্ছে। তবে আমাকে জাতীয় দায়িত্ব পালন করতে হবে। লাহোর কালান্দারস ও সকল ভক্তদের ধন্যবাদ তাদের অসাধারণ সমর্থন ও ভালোবাসার জন্য। ইনশাআল্লাহ্‌ আগামী বছর দেখা হবে।’


রশিদ যে পিএসএল পুরোটা খেলতে পারবেন না, তা মোটামুটি জানা গেছিল আফগানিস্তানের টেস্ট স্কোয়াড ঘোষণার পরপরই। কেননা ৮ নতুন মুখের স্কোয়াডে রাখা হয়েছিল রশিদকেই। আর তিনি নিজেও পিএসএলের ওপর বেছে নিয়েছেন জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট খেলাকে। তাই মাত্র ২ ম্যাচ খেলেই পিএসএল ছেড়ে যাচ্ছেন তিনি।


এদিকে রশিদ খান ফিরে গেলেও, টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগে আরও বেশ কিছু ম্যাচ খেলতে পারবেন মুজিব উর রহমান (পেশোয়ার জালমি), কাইস আহমেদ (কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরস) এবং নুর আহমেদরা (করাচি কিংস)। কারণ তাদেরকে টেস্ট স্কোয়াডে রাখা হয়নি। এছাড়া টেস্ট থেকে অবসর নেয়া মোহাম্মদ নাবীও (করাচি কিংস) আরও কিছু ম্যাচ খেলে তারপর যোগ দেবেন টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে।


জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আফগানিস্তানের টেস্ট স্কোয়াড

আসগর আফগান (অধিনায়ক), ইব্রাহিম জাদরান, জাভেদ আহমাদি, রহমত শাহ, হাশমতউল্লাহ শহিদি, আফসার জাজাই, নাসির জামাল, আব্দুল মালিক, মুনির আহমেদ কাকার, শহিদুল্লাহ কামাল, বাহির শাহ মাহবুব, রশিদ খান, আমির হামজা, ফজল হক ফারুকি, সৈয়দ আহমেদ শিরজাদ, সেলিম শাফি, ওয়াফাদার মোমান্দ, জিয়াউর রহমান আকবর এবং ইয়ামিন আহমেদজাই।


আফগানিস্তানের বিপক্ষে জিম্বাবুয়ের টেস্ট স্কোয়াড


শন উইলিয়ামস (অধিনায়ক), রায়ার্ন বার্ল, সিকান্দার রাজা, রেগিস চাকাভা, কেভিন কাসুজা, ওয়েসলে মাধভের, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, প্রিন্স মাসভাউরে, ব্রেন্ডন মাভুতা, তারিসাই মুসাকান্দা, রিচমন্ড মুতুম্বামি, ব্লেসিং মুজারাবানি, রিচার্ড এনগারাভা, ভিক্টর নিয়ুচি এবং ডোনাল্ড তিরিপানো।


টেস্ট সিরিজ শেষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন মিল্টন শুমবা, ফারাজ আকরাম এবং তিনাশে কামুনহুকামুই।


জিম্বাবুয়ে-আফগানিস্তান সিরিজের সূচি

প্রথম টেস্ট - ২ মার্চ

দ্বিতীয় টেস্ট - ১০ মার্চ

প্রথম টি টোয়েন্টি - ১৭ মার্চ

দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি - ১৯ মার্চ

তৃতীয় টি-টোয়েন্টি- ২০ মার্চ