দক্ষিণাঞ্চলের পায়রা সেতুতে অক্টোবরে চলবে যানবাহন

নিজস্ব প্রতিবেদক
জেলা প্রতিনিধি, বরিশাল।
প্রকাশিত: বুধবার ১৫ই সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:৩৭ অপরাহ্ন
দক্ষিণাঞ্চলের পায়রা সেতুতে অক্টোবরে চলবে যানবাহন

“শিগগিরই উদ্বোধন হবে বরিশালের লেবুখালির পায়রা সেতু। প্রধানমন্ত্রী এ সেতুর উদ্বোধন করবেন বলে জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী অক্টোবরে এ সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল করতে পারবে বলে আশাকরি। পায়রা বা লেবুখালি সেতুটি দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য আরেকটি পদ্মা সেতুর মতো। অক্টোবরেই এই সেতু দিয়ে যান চলাচল করতে পারবে। বরিশাল সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীর কার্যালয়ে বুধবার দুপুরে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এ কথা বলেন মন্ত্রী। 


এ সময় মন্ত্রী আরও বলেন, ‘পিরোজপুরের বেকুটিয়া সেতুর ৭৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। এ ছাড়া নলুয়া-বাহেরচর সেতু একনেকে পাস হয়েছেৃ নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করার সংস্কৃতি শুরু করতে হবে। কাজের মান ঠিক রেখে কাজগুলো গতিসম্পন্ন করতে হবে।’


বক্তব্য শেষে বরিশাল বিভাগে ৮৩ কোটি ২৩ লাখ ৯৮ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত আরো ১১টি সেতুর উদ্বোধন করেন তিনি। সেতুগুলো হলো বরিশালের রহমতপুর-বাবুগঞ্জ-মুলাদী- হিজলা সড়কের ২৮ দশমিক ৭৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে বাবুগঞ্জ সেতু, ৩১ দশমিক ৮২৮ দৈর্ঘ্যরে খাশেরহাট সেতু, ৩১ দশমিক ৮২৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে নবাবের হাট সেতু, ৩১ দশমিক ৮২৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে কাউরিয়া সেতু, ২৫ দশমিক ৭৪ মিটার দৈর্ঘ্যরে খাশেরহাট সেতু। ঝালকাঠির বরিশাল-ঝালকাঠি-ভান্ডারিয়া-পিরোজপুর আঞ্চলিক মহাসড়কের ৪৪ দশমিক ০২ মিটার দৈর্ঘ্যরে গুরুধাম সেতু, কাঠালিয়া (বান্দাঘাটা)-কৈখালী-বনাইহাট সড়কের ৬৯ দশমিক ৮৯৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে তফসের খেয়াঘাট সেতু। ভোলার পারানতালুকদারহাট-বোরহানউদ্দিন-লালমোহন-চরফ্যাশন-চরমানিকা আঞ্চলিক মহাসড়কে ৪৪ দশমিক ০২ মিটার দৈর্ঘ্যরে বাংলার জার সেতু। দেবীরচর-নাজিরপুর-লালমোহন-মঙ্গলসিকদার-তজুমুদ্দিন আঞ্চলিক মহাসড়কে ৪৪ দশমিক ০২ মিটার দৈর্ঘ্যরে দেবীরচর সেতু। পিরোজপুর জেলার চরখালী-তুষখালী-মঠবাড়িয়া-পাথরঘাটা সড়কে ৬৩ দশমিক ৭৯৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে হেতালিয়া সেতু, চরখালী-তুষখালী-মঠবাড়িয়া-পাথরঘাটা সড়কের ৭৫ দশমিক ৯৭৮ মিটার দৈর্ঘ্যরে মাদারসী সেতু।


উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বরিশাল প্রান্তে উপস্থিত ছিলেন সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তারেক ইকবাল, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মিন্টু রঞ্জন দেবনাথসহ সেতু প্রকল্পের প্রকৌশলীরা।


সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী তারেক ইকবাল বলেন, বরিশাল বিভাগের ৪ টি জেলার ১১ টি আজ মন্ত্রী মহোদয় উদ্বোধন করেছেন। এ সেতুগুলোর প্রতিটির স্থলে স্টিলের বেইলি ব্রীজ ছিলো, যা যানবাহন চলাচলের জন্য ঝুকিপূর্ণ ছিলো। ব্রীজ চালুর মাধ্যমে নিরাপদ যোগাযোগ ব্যবস্থা নিশ্চিত হলো। এ বছরও আমরা তিনটি সেতু রিপলেসমেন্ট করার কাজ হাতে নিয়েছি। চিন্তাভাবনা রয়েছে আগামীতে একটি বড় প্রকল্পের মাধ্যমে সকল বেইলি ও ঝুকিপূর্ণ সেতু রিপ্লেস করার।