সমুদ্রে মাছ ধরার অপরাধে ১১ জেলেকে আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক
আনোয়ার হোসেন আনু, উপজেলা প্রতিনিধি, কুয়াকাটা , পটুয়াখালী
প্রকাশিত: বুধবার ২২শে জুন ২০২২ ০৯:৫৭ অপরাহ্ন
সমুদ্রে মাছ ধরার অপরাধে ১১ জেলেকে আটক

৬৫ দিনের অবরোধ অমান্য করে মাছ শিকারের অপরাধে বঙ্গোপসাগরের বিজয় এলাকা থেকে ৭ টি মাছধরা ট্রলারের ১১ জেলেকে আটক করেছে কুয়াকাটা নৌ পুলিশ। বুধবার দিনভর অভিযান চালিয়ে এদেরকে আটক করা হয়। এসময় ট্রলারে থাকা ৫ মন ঝাটকা ইলিশ জব্দ করা হয়। আটককৃতদের বিরুদ্বে নিয়মিত মামলা রজু করা হয়েছে। একই সাথে ট্রলার মালিকদের বিরুদ্ধেরও মামলা করা হয়। মঙ্গলবার সকালে আটককৃত জেলেদের আদালতে সোপর্দ করা হবে।


আটককৃত জেলা হলেন, মোঃ ওদুদ মাঝি (৪৫), পাবেল চৌকিদার (৩০), মোঃ সাঈদ প্যাদা (২৫), মোঃ মঞ্জ মুন্সী (২৫), মোঃ ইলিয়াস সরদার (১৯), জাহিদুল হাওলাদার (২২), মোঃ জুলহাস মাহমুদ (৪০),  নজরুল হাওলাদার (৪৫), মোঃ সোহান গাজী (২০), মোঃ হারুন চৌকিদার (৪৫)। এদের বাড়ি রাঙ্গাবালী ও গলাচিপা এলাকায়। 


কুয়াকাটা নৌ-পুলিশ ফাড়ির এ এস আই কামরুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুয়াকাটা নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ওসি আকতার মোর্শেদ’র নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে কুয়াকাটা থেকে ৩০ কিঃমিঃ গভীরে বঙ্গোপসাগরের চর বিজয়ের দক্ষিনে এসব জেলে ট্রলার অবৈধভাবে মাছ শিকার করছিল। সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত একটানা অভিযান চালিয়ে ৭ টি মাছধরা ট্রলারকে আটক করতে সক্ষম হন তারা। জনবল সংকটের কারনে ট্রলার গুলো জব্দ করা সম্ভব হয়নি। তাই ৭ টি ট্রলারের ১১ জন মাঝি মাল্লাকে আটক করে নিয়ে আসা হয়েছে। এসময় ট্রলারে থাকা প্রায় ৫ মন ঝাটকা জব্দ করে আনা হয়।


কুয়াকাটা নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ওসি মোঃ আকতার মোর্শেদ বলেন, আটককৃত জেলেরা অবরোধ অমান্য করে মাছ শিকার করছিল। দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে এদের আটক করা হয়। জেলে ও ট্রলার মালিকদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আইনী প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে জেলে পাঠানো হবে। তিনি আরও বলেন, সমুদ্রে অবৈধভাবে মাছ শিকার বন্ধে নিয়মিত অভিযান চলমান থাকবে। মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে জব্দকৃত মাছগুলো নিলামে বিক্রি করা হয়।