বরিশালে জমে উঠেছে বিসিক উদ্যোক্তা মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
জেলা প্রতিনিধি, বরিশাল।
প্রকাশিত: শনিবার ২০শে নভেম্বর ২০২১ ০৪:৩০ অপরাহ্ন
বরিশালে জমে উঠেছে বিসিক উদ্যোক্তা মেলা

শিশু-কিশোর সহ নানা বয়সী দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠছে বরিশাল বিসিক শিল্প নগরীর উদ্যোক্তা মেলা প্রাঙ্গন। করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় অনেকেই মুক্ত হাওয়ায় কোমলমতি সন্তানদের নিয়ে ঘুরতে আসছেন মেলায়। মেলায় সুস্থ ধারার বিভিন্ন বিনোদনসহ শিশুদের জন্য রয়েছে আকর্ষণীয় অনেক বিনোদনের সুবিধা। এছাড়া মেলার প্রবেশদ্বারে স্বাস্থ্যবিধি নিয়ন্ত্রণের জন্য রয়েছে ফ্রী মাক্স বিতরণ, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার যা স্বাস্থ্যবিধি মানতে সহায়ক ভুমিকা পালন করছে। মেলার উল্লেখযোগ্য বিষয় হল সকল শ্রেণী-পেশার দর্শনার্থীদের জন্য ফ্রি প্রবেশের ব্যাবস্থা। মেলার আয়োজক কমিটি ও মেলায় অংশ নেওয়া উদ্যোক্তাদের দাবী, করোনা পরবর্তী এ ধরণের একটি সুন্দর ও মনোরম পরিবেশে মেলা আয়োজন করায় সাড়াও পাচ্ছেন তারা।


বরিশাল নগরীর কাউনিয়া বিসিক শিল্পনগরীর বালুর মাঠে গত ১০ নভেম্বর উদ্বোধন হয়েছে সর্ববৃহৎ উদ্যোক্তা মেলা। জেলা তথা বিভাগের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা এবং ব্যবসায়ীদের নিয়ে জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এ মেলা শুরু হয়। ইতিমধ্যে নগরীতে সাড়া ফেলেছে উদ্যোক্তা মেলা। প্রতিদিন হাজারো দর্শনার্থীদের ভিড়ে মুখরিত থাকে মেলা প্রাঙ্গণ। বিশেষ করে শুক্র ও শনিবার অফিস আদালত বন্ধ থাকায় উদ্যোক্তাদের হাতে তৈরি বিভিন্ন শিল্পকর্ম ও পণ্য সামগ্রী কম দামে কিনতে ছুটে আসছেন বিভিন্ন জায়গা থেকে আগত দর্শনার্থী ও ক্রেতারা। 


মেলায় বিভিন্ন উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণে প্রায় ৮০ টি দোকান রয়েছে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে  হস্তশিল্প, কুটিরশিল্প, পাটজাত ব্যাগ, পোশাক, আচার, তাঁতশিল্প, বাহারী খাবারসহ হরেকরকম ব্যতিক্রমী পণ্য নিয়ে হাজির হয়েছেন উদ্যোক্তারা।


এদিকে মেলার নিরাপত্তার জন্য রয়েছে ১০টির বেশি সিসি ক্যামেরা ছাড়াও শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার্থে সার্বক্ষণিক প্রশাসনের নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। মেলার মূল আকর্ষণ হিসেবে শিশুদের বিনোদনের জন্য রয়েছে জাম্পিং জোন, বল হাউজ, ট্রেন, নৌকা দোলনা, চড়ক বাজি, হানি সিং, সুপার চেয়ার, পানির ফোয়ারা, বেলুন সুট সহ বিভিন্ন রাইডিং এর ব্যবস্থা।


মেলায় ঘুরতে আসা ফাহমিদা আলম বলেন, করোনা মহামারী প্রকোপ কাটিয়ে দীর্ঘদিন পরে বরিশালে মেলা শুরু হওয়ায় মেলায় আসতে পেরে অনেক ভালো লাগছে। এছাড়া এখানে দেখা ও কেনার মতো অনেক কিছু আছে, বিশেষ করে বাচ্চাদের বিনোদনের আয়োজনটি বেশি ভালো লেগেছে।  নগরীর বিভিন্ন এলাকা থেকে মেলায় ঘুরতে ও কেনাকাটা করতে আসা আবির, শিমলা, নুপুর ও পলাশ এরকম একটি মেলার আয়োজন করায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, সব কিছুই ভালো লেগেছে তবে সার্কাস, পুতুল নাচ সহ বিনোদনের আইটেমগুলো হলে পরিবারের সবার ভালো লাগতো। 


বিসিক উদ্যোক্তা মেলার আয়োজকবৃন্দ জানান, আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি মেলায় আসা সকল দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা, শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। দীর্ঘদিন পর বরিশাল নগরীতে একটি সুন্দর ও মনোরম পরিবেশে মেলা আয়োজন করায় ভাল সাড়া পাচ্ছেন বলেও জানান তারা।