তেলের দাম বৃদ্ধি: অশান্ত শিল্প খাত

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: রবিবার ১৪ই নভেম্বর ২০২১ ০৪:৫৪ অপরাহ্ন
তেলের দাম বৃদ্ধি: অশান্ত শিল্প খাত

আন্তর্জাতিক বাজারে প্রায় সব ধরনের কাঁচামালের মূল্যবৃদ্ধিতে বেশ সংকটের মধ্যে ছিলো দেশের রপ্তানিমুখী উৎপাদন খাত। যেখানে আগুনে ঘি ঢালার উপক্রম হয়েছে হঠাৎ জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির খবরে। এমন অবস্থায় আরও অশান্ত হওয়ার শঙ্কায় আছে শিল্প খাত। 


অর্থনীতির অন্যতম চালিকাশক্তি জ্বালানি তেল। শিল্পের এমন শাখা পাওয়া দায় যেখানে এর সংশ্লিষ্টতা নাই।


দেশের শীর্ষ রপ্তানি শিল্প তৈরি পোশাক খাতে জ্বালানি তেলের দামের রয়েছে বড় ভূমিকা। তাই হঠাৎ পোশাক শিল্পের অন্যতম এ অনুষঙ্গের দাম বৃদ্ধিতে বেড়েছে উৎকণ্ঠা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দাম বৃদ্ধিতে অতিরিক্ত যে খরচ বাড়বে তাতে বিদেশি ক্রেতাদের সাথে বাড়বে দূরত্ব।


বিজিএমইএ সহ-সভাপতি শহীদউল্লাহ আজিম বলেন, আমি বায়ারকে যে বলব আমার মূল্য বাড়াও সে মুখ আমার নেই। কেননা ২০০০ ডলারের পেট্রোল ৮ লাখ থেকে ১০ লাখ ডলার। তারও তো স্পেস থাকতে হবে। তার মধ্যে আমি যদি এখন বলি যে আমার খরচ বেড়ে গেছে তুমি আমার মূল্য বাড়িয়ে দাও তাহলে বায়াররা সব ভাগবে। আর আমাদের অর্ডারগুলো বাতিল করে দিবে। আর নয়তো বলবে তোমাদের পয়সা খরচ করে মালগুলো পাঠাও। 


শুধু তৈরি পোশাক নয়, সব পণ্যেরই উৎপাদন খরচ বাড়ায় কপালে দুশ্চিন্তার ভাঁজ ব্যবসায়ী-উদ্যোক্তাদের।


আনোয়ার গ্রুপের প্রতিষ্ঠান আনোয়ার ল্যান্ডমার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসেন খালেদ বলেন, ১৫ টাকা তেলের দাম বৃদ্ধি পেলে মূলত তা গিয়ে আঘাত করছে ১৬ কোটি মানুষের উপর। শুধু আমরা যারা ম্যানুফেক্চারের সঙ্গে জড়িত তাদের ওপর না। 


জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রভাব পড়বে সব শ্রেণী পেশার মানুষের ওপরই। তাই ভর্তুকি দিয়ে হলেও দাম নিয়ন্ত্রণে রাখার পরামর্শ এই বিশ্লেষকের।


সিপিডির গবেষণা পরিচালক ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম বলেন, সরকারের উচিত হবে এ মুহূর্তে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসা, সিদ্ধান্তটা প্রত্যাহার করা বা স্থগিত রাখা এবং বর্ধিতমূল্যের কারণে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন বিপিসির যে ব্যয় হচ্ছে সে বাড়তি ব্যয়টুকু সরকার ভর্তুকির মাধ্যমে অথবা বিপিসির পূর্বতন বছরগুলোতে যে, মুনাফা বা লাভ হয়েছে সেটির মাধ্যমে এটিকে সমন্বয় করা। 


করোনায় বিধ্বস্ত অর্থনীতির চাকা সচলের সময়ে সরকারের জ্বালানির দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্তকে অযৌক্তিক বলছেন তিনি।