বিকশিত হবার আগেই একটি ফুলকে ছিড়ে ফেলা হলো : ইবি উপাচার্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
তারিক সাইমুম, ইবি
প্রকাশিত: সোমবার ১৮ই অক্টোবর ২০২১ ০২:৫৫ অপরাহ্ন
বিকশিত হবার আগেই একটি ফুলকে ছিড়ে ফেলা হলো : ইবি উপাচার্য

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে শেখ রাসেল দিবস-২০২১ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম একথা বলেন। তিনি আরো বলেন, কোমলমতি শিশু শেখ রাসেল ছিলেন বহুবিধ প্রতিভার অধিকারী বিকাশমান একটি ফুল, দুর্বৃত্তরা সেই ফুলকে পরিপূর্ণ বিকশিত হবার আগেই ছিড়ে ফেলে। শেখ রাসেলের জন্মদিনটা তাঁর মৃত্যুদিনের কারণে ম্লান হয়ে যায়। কিন্তু তাঁর জন্মটা আর দশটা বাচ্চার মতো স্বাভাবিক পরিবেশে ছিলো না রাজনৈতিক টালমাটাল পরিবেশের মধ্যেই জন্মগ্রহন করেন শেখ রাসেল। বঙ্গবন্ধুর সানিধ্যে খুব বেশি একটা পায়নি শেখ রাসেল।


এর আগে সোমবার (১৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ রাসেল হলে পতাকা উত্তোলন, বেলুন উড়ানো ও কেক কাটার মধ্যে দিয়ে দিবসটি শুরু হয়।এসময় শেখ রাসেল স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, শেখ রাসেল হল, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল, ইবি ছাত্রলীগ,  বাংলা বিভাগ, আইন ও ভূমি ব্যবস্থাপনা বিভাগ ও ইবি ল্যাব স্কুল অ্যান্ড কলেজ। 


এরপর শেখ রাসেল হলে 'শেখ রাসেল' লাইব্রেরির শুভ উদ্বোধন করে হল রুমে এক আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। শেখ রাসেল দিবস উদযাপনের আহবায়ক অধ্যাপক ড.মোঃ আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে এবং বাংলা বিভাগের শিক্ষক তপন কুমার রায়ের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোঃ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া। 


এছাড়াও স্বাগত বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শেখ রাসেল হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. মোঃ রবিউল হোসেন এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মু. আতাউর রহমান। এছাড়া বিভিন্ন হলের প্রভোস্টবৃন্দ, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-কর্মকর্তাবৃন্দ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।আলোচনা শেষে শেখ রাসেলের স্মরণে বিশ্ববিদ্যালয়ের ও ইবি ল্যাব স্কুলের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে বিভিন্ন প্রতিযোগিতার ফলাফল ও পুরস্কার বিতরণ করেন উপস্থিত অতিথিবৃন্দ।


উল্লেখ্য, বিকালে শেখ রাসেল হলের হল রুমে শেখ রাসেল দিবসে সপ্তাহ ব্যাপি আয়োজিত ৮টি হলের অংশগ্রহণে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তঃহল বিতর্ক প্রতিযোগিতার চুড়ান্ত পর্বে শেখ রাসেল হল ও খালেদা জিয়া হলের মাঝে বিতর্কটি অনুষ্ঠিত হবে।