আশাশুনির পল্লীতে গলায় রশি বাঁধা অবস্থায় এক যুবকের লাশ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক
সচ্চিদানন্দদেসদয়, উপজেলা প্রতিনিধি, সাতক্ষিরা
প্রকাশিত: রবিবার ১৪ই ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৮:৫৮ পূর্বাহ্ন
আশাশুনির পল্লীতে গলায় রশি বাঁধা অবস্থায় এক যুবকের লাশ উদ্ধার

আশাশুনির পল্লীতে মৎস্য ঘেরের বাসা থেকে গলায় রশি বাঁধা অবস্থায় এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় উপজেলার লস্করী খাজরায়। জানাগেছে, নিহত শরিফুল ইসলাম (২৬) ওই গ্রামের আব্দুল মজিদ গাজীর ছেলে।


ঘটনার দিন শরিফুলের মা ভোরে ঘেরের বাসায় তার ছেলেকে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পাশর্^বর্তী লোকজন ছুটে যেয়ে শরিফুলকে গলায় রশি বাঁধা অবসস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশে খবর দেয়। এ খবরে এসআই আজিজুর রহমান ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরোতহাল রিপোর্ট শেষে ময়না তদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদরে মর্গে প্রেরণ করেছে।


সুরতহাল রিপোর্ট তৈরীকারী এসআই আজিজুর রহমান জানান, লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। রিপোর্ট থানায় না পৌছানো পর্যন্ত মৃত্যের সঠিক কারণ বলা সম্ভব নয় বা রির্পোর্টের পরই পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।


প্রসঙ্গত, নিহতের পরিবার ও স্থানীয় বিশ^স্ত সূত্রে জানাগেছে, নিহত শরিফুল ইসলাম (২৬) এর সাথে পাশর্^বর্তী আব্দুর রফি মালির কন্যা ফাতেমা খাতুন (২২) এর গত এক বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তাদের স্বামী স্ত্রীর মধ্যে কম বেশী মনোমালিন্য হলে ফাতেমা প্রায়ই বাপের বাড়ী অবস্থান করে। ক’দিন আগে উভয়ের অভিভাবকের আলোচনান্তে মিমাংসাও হয়।


এরই প্রেক্ষিতে ঘটনার আগের দিন সন্ধ্যায় শরিফুল শ^শুর বাড়ীতে যায়। পরদিন ভোরে অজ্ঞাত কারনে শরিফুলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয় তার শ^শুর বাড়ীর পাশে একটি ঘেরে বাসা থেকে। এ ব্যাপারে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে বলে তার পরিবার দাবী করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় প্রাথমিকভাবে অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে বলে তার পরিবার জানায়।