বিশ্বের প্রথম পোর্টেবল বেসিন হ্যাপিট্যাপ এখন বাংলাদেশে

নিজস্ব প্রতিবেদক
সামির আসাফ, বিশেষ প্রতিনিধি, জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: বুধবার ১লা এপ্রিল ২০২০ ০৩:৫২ অপরাহ্ন
বিশ্বের প্রথম পোর্টেবল বেসিন হ্যাপিট্যাপ এখন বাংলাদেশে

সম্প্রতি ওয়াটারশেড হোল্ডিংস সিঙ্গাপুর লিমিটেড বাংলাদেশে নিয়ে এলো বিশে^র প্রথম পোর্টেবল বেসিন হ্যাপিট্যাপ। এই মুহূর্তে সারাবিশে^ করোনা ভাইরাস/কোভিড-১৯ থেকে সুরক্ষা পেতে এবং এর ছড়িয়ে পড়া রোধ করতে বারবার হাত ধোয়া ও পরিচ্ছন্নতার গুরুত্ব নিয়ে বলা হচ্ছে। এক্ষেত্রে হ্যাপিট্যাপের সহজে বহনযোগ্যতা সকলকে সুরক্ষিত ও পরিচ্ছন্ন রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে পারে ঘরে ও ঘরের বাইরেও।  

দীর্ঘদিন ধরে মানুষের দৈনন্দিন জীবন সহজ করতে বিভিন্ন পণ্য তৈরি ও বাজারজাত করছে ওয়াটারশেড হোল্ডিংস সিঙ্গাপুর লিমিটেড। এই ধারা অব্যাহত রেখে সম্প্রতি তারা প্রতিষ্ঠা করেছে হ্যাপিট্যাপ বাংলাদেশ লিমিটেড। ২০১৩ সাল থেকে, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার অভ্যাস গড়ে তোলা ও সবার সুবিধার বিষয়টি চিন্তা করে তারা বাজারে নিয়ে আসে বিশে^র প্রথম পোর্টেবল বেসিন। ইউনিলিভার পিএলসি, ডিএফআইডি ও আর্নেস্ট এন্ড ইয়ং এর সমাজকল্যাণমূলক স্টার্টআপ ট্রান্সফর্ম এর সহায়তায় বিভিন্ন গবেষণার পর হ্যাপিট্যাপ ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে স্বল্প পরিসরে যাত্রা শুরু করে। দীর্ঘ দুই বছরের গবেষণার মাধ্যমে ভোক্তাদের আচার-আচরণ ও অভ্যাস বিশ্লেষণ করা হয় এবং সেই অনুযায়ী হ্যাপিট্যাপ ডিজাইন করা হয়। এরপর ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে হ্যাপিট্যাপ বাংলাদেশে বাণিজ্যিকভাবে যাত্রা শুরু করে।

হ্যাপিট্যাপ বাংলাদেশ লিমিটেড এর চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার জনাব জেফ্রি রেভেল বলেন, “আমাদের লক্ষ্য খুবই সাধারণ, ‘সবাই সাবান দিয়ে নিয়মিত হাত ধুবে’। দুর্ভাগ্যবশত, দীর্ঘদিন ধরে হাত ধোয়ার মতো গুরুত্বপূর্ণ অভ্যাস অবহেলিত হয়ে আসছিল। কিন্তু আমরা সবসময় বিশ্বাস করি শুধু সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার মাধ্যমেই আমরা বিভিন্ন ইনফেকশন ও বৈশ্বিক যেকোনো মহামারী রুখতে পারি। তাই এক দশকেরও বেশি সময় ধরে হ্যাপিট্যাপ নিয়মিত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার অভ্যাস গড়ে তুলতে সবার থেকে এগিয়ে আছে। আমরাই প্রথম কোম্পনি, যারা দেখতে আকর্ষণীয় ও সবার জন্য সুবিধাজনক, এমন এক পোর্টেবল বেসিন বাজারে এনেছি। দুই বছরের গভীর গবেষণার শেষে যে বেসিনটি তৈরি করা হয়েছে, এটি আসলে বাংলাদেশের মানুষদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে ডিজাইন করা হয়েছে। আমরা নিশ্চিত যে বাংলাদেশের প্রতিটি বাড়িতে, স্কুল ও স্বাস্থ্যসেবা সংস্থায় প্রতিটি মানুষকে এটি নিয়মিত হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে সাহায্য করবে।”

প্রাণঘাতী করোনাসহ অন্যান্য ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া রোধ করতে হ্যাপিট্যাপ যেমন ঘরে ও বাইরে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, তেমনই হাত ধোয়া ছাড়াও সাধারণ বেসিনের মতোই এতে ব্রাশ করা, শেভ করা ও মুখ ধোয়ার মতো পরিচ্ছন্নতামূলক কাজ করা যায়। আগ্রহী ক্রেতারা হ্যাপিট্যাপের অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজ: www.facebook.com/happytapbd থেকেও ক্রয় করতে পারবেন। এর মূল্য ডেলিভারি চার্জ ছাড়া মাত্র ১,৫৫০ টাকা। এছাড়াও বেশ কিছু ই-কমার্স সাইটেও হ্যাপিট্যাপ পাওয়া যাবে। 


ইনিউজ ৭১/টি.টি. রাকিব