পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীকে হত্যা, স্ত্রীসহ ৫ জনকে মৃত্যুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: বৃহঃস্পতিবার ৩রা ডিসেম্বর ২০২০ ০৮:১৩ অপরাহ্ন
পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় স্বামীকে হত্যা, স্ত্রীসহ ৫ জনকে মৃত্যুদণ্ড

পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় প্রবাসফেরত স্বামী মমিনুল হককে ভাড়াটে খুনি দিয়ে হত্যার দায়ে স্ত্রী রাবেয়া বেগমসহ ৫ জনকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে প্রত্যেক আসামিকে পাঁচ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দেয়া হয়েছেন।বৃহস্পতিবার দুপুরে খাগড়াছড়ি জেলা ও দায়রা জজ রেজা মো. আলমগীর হাসানের আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।দণ্ডাদেশপ্রাপ্ত অন্যরা হলো, রামগড় চৌধুরীপাড়ার মানিক মিয়ার ছেলে সাইফুল ইসলাম (২৪), একই এলাকার মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে ফিরোজ (২৮), গুইমারা উপজেলার রেনুছড়া এলাকার শাহ আলমের ছেলে আবুল কালাম(২২) ও একই এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে আবুল আসাদ ওরফে মিঠু (২০)।

দণ্ডাদেশপ্রাপ্তদের মধ্যে আবুল আসাদ ওরফে মিঠু ছাড়া অন্যরা খাগড়াছড়ি জেলা কারাগারে রয়েছে।খাগড়াছড়ির পাবলিক প্রসিকিউটর বিধান কানুনগো রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারায় প্রবাসী মমিনুল হকের স্ত্রী রাবেয়া বেগম পরকীয়ার জেরে স্বামীকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরে ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে ভাড়াটিয়া খুনি দিয়ে স্বামী মমিনুল হককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে জঙ্গলে লাশ ফেলে রাখা হয়।

২০১৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় স্থানীয়রা মমিনুলের লাশ দেখে পুলিশে খবর দেয়।পরে ওই ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ঘটনায় পুলিশ ৫ সেপ্টেম্বর আদালতে চার্জশিট দেয়। এ মামলায় ১২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত।রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে খাগড়াছড়ির পাবলিক প্রসিকিউটর বিধান কানুনগো বলেন, আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আদালত দণ্ডবিধির ৩০২/৩৪ ধারায় প্রত্যেক আসামিকে মৃত্যুদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড দিয়েছেন।