বৃহস্পতিবার, ১৯ জানুয়ারি ২০১৭ , ৬ মাঘ ১৪২৩

রাঙ্গুনিয়ায় শালার খুনী দুলাভাই মোহাম্মদ আলী আটক

Published On : Jan 12 2017 9:53 AM


রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি : রাঙ্গুনিয়ার ইসলামপুর ইউনিয়নের চাঞ্চল্যকর নুরুল ইসলাম ওরফে নুরু (৩০) খুনের নেপথ্যের নায়ক তারই আপন দুলাভাই মোহাম্মদ আলীকে আটক করেছেন পুলিশ। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে কিলিং অপারেশনে সরাসরি অংশ নেয়া তিন খুনীর জবানবন্দির ভিত্তিতে পুলিশ মোহাম্মদ আলীকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করলে আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারী করেন। 

বুধবার রাতে রাঙ্গুনিয়া থানার এসআই রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল ইসলামপুর ইউনিয়নের একটি ইটভাটা থেকে তাকে আটক করেন। সাবেক পুলিশ সুপার বাবুল আকতারের স্ত্রী মিতু হত্যাকান্ডের মূল হোতা মুসা’র সহযোগী দূর্ধর্ষ মোহাম্মদ আলীকে দীর্ঘদিন ধরে পুলিশ খুঁজছিলেন বলে থানা সুত্র জানায়। গত বছরের ১৪ জানুয়ারি তারই ইন্ধনে আপন শালা নুরুল ইসলাম নুরুকে হত্যা করেন সতীর্থরা। এরপর পুলিশের অনুসন্ধান ও কিলিং অপারেশনে অংশ নেয়া তিন খুনী জামাল উদ্দিন, শামছুল আলম সানি ও মো. রুবেলের আদালতে দেয়া স্বীকারোক্তিতে তার দুলাভাই মোহাম্মদ আলীর সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া যায়। এরপর থেকেই সে গা ঢাকা দেন। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, রাঙ্গুনিয়ার ইসলামপুর এলাকায় কয়েকবছর আগে শালা-দুলাভাই মিলে গড়ে তুলেছিলেন একটি সশস্ত্র চাঁদাবাজ বাহিনী। ৭/৮ জনের এই গ্রুপে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অগ্রভাগে থাকতেন ইসলামপুর ইউনিয়নের মাইজ পাড়া গ্রামের মৃত আবদুল মোনাফ প্রকাশ মনু মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম নুরু। আর এ বাহিনীর মূল গডফাদার ছিলেন নুরুর বড় বোনের জামাই ও একই গ্রামের হাজী নাদেরুজ্জামান প্রকাশ নাদু হাজীর ছেলে মোহাম্মদ আলী। সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে ব্যবহারের জন্য শালা নুরুকে ৯৫ হাজার টাকায় একটি বন্দুকও কিনে দেন দুলাভাই মো. আলী। 

একপর্যায়ে তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে ও তার কাছে নুরুর জমা রাখা ১৪ লাখ টাকা মেরে দিতে সতীর্থদের মাধ্যমে সন্ত্রাসী নুরুকে খুনের পরিকল্পনা করেন মোহাম্মদ আলী। দিনে রাতে সরকার সংরক্ষিত বাগানের গাছ কেটে বিভিন্ন ইট ভাটায় জ্বালানি হিসেবে সরবরাহ করে তখন কয়েক বছরে প্রায় অর্ধ কোটি টাকা আয় করেন এই সন্ত্রাসী গ্রুপটি। এলাকার বিভিন্ন ইটভাটা ও প্রবাসীদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি, সংরক্ষিত বনের গাছ কেটে নিয়ে যাওয়া, মসজিদের মাইক ও দানবাক্সের টাকা লুট, এলাকার শতাধিক গরু চুরিসহ এহেন কোন অপরাধ নেই গত কয়েক বছরে তারা করেনি। এলাকার প্রভাবশালী নাদু হাজীর ছেলে মোহাম্মদ আলীই এসব অপরাধের মূল হোতা বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি মো. হুমায়ুন কবির শালার খুনী দুলাভাই মোহাম্মদ আলীকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ তাকে দীর্ঘদিন ধরে খুঁজছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আটক করে গতকাল তাকে আদালতে সোপর্দ করলে তাকে আদালত জেল হাজতে পাঠান বলে তিনি জানান। 

লগইন করুন


পাঠকের মন্তব্য ( 0 )